রবিবার, ২৮ মে ২০২৩, সন্ধ্যা ৭:৫৭
রবিবার, ২৮ মে ২০২৩,সন্ধ্যা ৭:৫৭

সড়কের পাশে পড়ে ছিল মোটরসাইকেলসহ দু’যুবকের মরদেহ

স্টাফ রিপোর্টার, মনিরামপুর (যশোর)

২ মার্চ, ২০২৩,

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

১২:৩৪ pm

যশোরের মনিরামপুরে সড়কের পাশ থেকে দুমড়েমুচড়ে যাওয়া একটি মোটরসাইকেলসহ দু যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস। এ সময় আহত এক যুবককে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়েছেন তারা। ধারণা করা হচ্ছে কাভার্ড ভ্যানের ধাক্কায় ছিটকে পড়ে এ হতাহতের ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১ টার দিকে যশোর-চুকনগর সড়কের মনিরামপুর সরকারি কলেজ সংলগ্ন হাজরাকাটি কালভার্টের কাছ ঘটনাটি ঘটে।
তবে কিভাবে হতাহতের ঘটনা ঘটেছে তা নিশ্চিত করে জানাতে পারেনি পুলিশ ও ফায়ারসার্ভিস।

নিহতরা হলেন, খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার নরনিয়া গ্রামের আইয়ুব মোড়লের ছেলে মাসুদ রানা (২৫) ও কেশবপুর উপজেলার শ্রীরামপুর গ্রামের আব্দুস সামাদ শেখের ছেলে রুবেল শেখ (২৪)। মাসুদ ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালক ও রুবেল ট্রাকের হেলপার ছিলেন।

আহত যুবকের নাম রাকিব মোড়ল (২৪)। তিনি ডুমুরিয়ার নরনিয়া গ্রামের আলী মোড়লের ছেলে। রাকিবকে রাতেই মুমূর্ষু অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মনিরামপুর ফায়ারসার্ভিস স্টেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা প্রণব বিশ্বাস বলেন, রাত ১১ টার পরে মনিরামপুর সরকারি কলেজের অদূরে কালভার্টের কাছে দুর্ঘটনায় হতাহতের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যাই। আমরা পৌঁছানোর পর দেখি একটি মোটরসাইকেল পড়ে আছে। বাইকটির সামনের অংশ ভাঙা। পাশেই দু জনের লাশ পড়ে ছিল। একজনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে মনিরামপুর হাসপাতালে পৌঁছে দিয়েছি।
প্রণব বিশ্বাস বলেন, দুর্ঘনার সময় সেখানে কেউ ছিলেন না। এ জন্য কিভাবে দুর্ঘটনা হয়েছে তা সঠিক জানা যায়নি। কেউ কেউ বলছিলেন, একটি কাভার্ড ভ্যান তাঁদের চাপা দিয়ে পালিয়ে গেছে।

ডুমুরিয়ার নরনিয়া এলাকার ইউপি সদস্য আব্দুস সালাম বলেন, বুধবার রাতে মাসুদ রানার মোটরসাইকেলে চড়ে তিনজন যশোর থেকে বাড়ি ফিরছিল। রাত ১১টার পরে মনিরামপুর এলাকায় দুর্ঘটনায় দু জনের মৃত্যু হয়েছে।

ইউপি সদস্য আব্দুস সালাম বলেন, নিহত মাসুদ ও আহত রাকিবের বাড়ি আমার গ্রামে। মাসুদ ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালাতেন। আর রাকিব স্থানীয় বাস টার্মিনালে গাড়ি ধৌয়ার কাজ করেন। রাকিব মুমূর্ষু অবস্থায় ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

মনিরামপুর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসকের বরাত দিয়ে ওয়ার্ডবয় আক্তার হোসেন বলেন, রাতে রাকিব নামে একজনকে আহত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছে। অবস্থা গুরুত্বর হওয়ায় রাতেই তাঁকে যশোর সদর হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।

মনিরামপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) হাসান আলী দুর্ঘটনায় দুজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, নিহতদের একজনের বাড়ি ডুমুরিয়ায়। অন্য জনের বাড়ি কেশবপুরে। রাতেই দুজনের মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

Related Posts

সড়কের পাশে পড়ে ছিল মোটরসাইকেলসহ দু’যুবকের মরদেহ

স্টাফ রিপোর্টার, মনিরামপুর (যশোর)

২ মার্চ, ২০২৩,

১২:৩৪ pm

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

যশোরের মনিরামপুরে সড়কের পাশ থেকে দুমড়েমুচড়ে যাওয়া একটি মোটরসাইকেলসহ দু যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস। এ সময় আহত এক যুবককে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়েছেন তারা। ধারণা করা হচ্ছে কাভার্ড ভ্যানের ধাক্কায় ছিটকে পড়ে এ হতাহতের ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১ টার দিকে যশোর-চুকনগর সড়কের মনিরামপুর সরকারি কলেজ সংলগ্ন হাজরাকাটি কালভার্টের কাছ ঘটনাটি ঘটে।
তবে কিভাবে হতাহতের ঘটনা ঘটেছে তা নিশ্চিত করে জানাতে পারেনি পুলিশ ও ফায়ারসার্ভিস।

নিহতরা হলেন, খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার নরনিয়া গ্রামের আইয়ুব মোড়লের ছেলে মাসুদ রানা (২৫) ও কেশবপুর উপজেলার শ্রীরামপুর গ্রামের আব্দুস সামাদ শেখের ছেলে রুবেল শেখ (২৪)। মাসুদ ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালক ও রুবেল ট্রাকের হেলপার ছিলেন।

আহত যুবকের নাম রাকিব মোড়ল (২৪)। তিনি ডুমুরিয়ার নরনিয়া গ্রামের আলী মোড়লের ছেলে। রাকিবকে রাতেই মুমূর্ষু অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মনিরামপুর ফায়ারসার্ভিস স্টেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা প্রণব বিশ্বাস বলেন, রাত ১১ টার পরে মনিরামপুর সরকারি কলেজের অদূরে কালভার্টের কাছে দুর্ঘটনায় হতাহতের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যাই। আমরা পৌঁছানোর পর দেখি একটি মোটরসাইকেল পড়ে আছে। বাইকটির সামনের অংশ ভাঙা। পাশেই দু জনের লাশ পড়ে ছিল। একজনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে মনিরামপুর হাসপাতালে পৌঁছে দিয়েছি।
প্রণব বিশ্বাস বলেন, দুর্ঘনার সময় সেখানে কেউ ছিলেন না। এ জন্য কিভাবে দুর্ঘটনা হয়েছে তা সঠিক জানা যায়নি। কেউ কেউ বলছিলেন, একটি কাভার্ড ভ্যান তাঁদের চাপা দিয়ে পালিয়ে গেছে।

ডুমুরিয়ার নরনিয়া এলাকার ইউপি সদস্য আব্দুস সালাম বলেন, বুধবার রাতে মাসুদ রানার মোটরসাইকেলে চড়ে তিনজন যশোর থেকে বাড়ি ফিরছিল। রাত ১১টার পরে মনিরামপুর এলাকায় দুর্ঘটনায় দু জনের মৃত্যু হয়েছে।

ইউপি সদস্য আব্দুস সালাম বলেন, নিহত মাসুদ ও আহত রাকিবের বাড়ি আমার গ্রামে। মাসুদ ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালাতেন। আর রাকিব স্থানীয় বাস টার্মিনালে গাড়ি ধৌয়ার কাজ করেন। রাকিব মুমূর্ষু অবস্থায় ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

মনিরামপুর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসকের বরাত দিয়ে ওয়ার্ডবয় আক্তার হোসেন বলেন, রাতে রাকিব নামে একজনকে আহত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছে। অবস্থা গুরুত্বর হওয়ায় রাতেই তাঁকে যশোর সদর হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।

মনিরামপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) হাসান আলী দুর্ঘটনায় দুজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, নিহতদের একজনের বাড়ি ডুমুরিয়ায়। অন্য জনের বাড়ি কেশবপুরে। রাতেই দুজনের মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

Related Posts