সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, রাত ৩:৩৬
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪,রাত ৩:৩৬

স্ত্রী হারানোর শোকে গলায় ফাঁস দিলেন শিক্ষক

মনিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি 

১১ জানুয়ারি, ২০২৩,

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

৫:৪২ pm

যশোরের মনিরামপুরে হরেন্দ্রনাথ রায় (৫৫) নামে এক স্কুল শিক্ষকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার হয়েছে।বুধবার (১১ জানুয়ারি) সকালে বাড়ির পাশে একটি আম গাছের ডালের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় স্বজনরা তাঁর মরদেহ উদ্ধার করেন।

হরেন্দ্রনাথ রায় উপজেলার পাঁচকাটিয়া গ্রামের
ভবতরন রায়ের ছেলে। তিনি হাজিরহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ছিলেন।

৩ থেকে ৪ মাস আগে স্ট্রোক করে হরেন্দ্রনাথ রায়ের স্ত্রী অঞ্জনা রায় মারা যান। তিনি স্ত্রীকে খুব ভালবাসতেন। স্ত্রীকে হারানোর শোক সইতে না পেরে তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে সহকর্মী ও স্বজনরা জানিয়েছেন।

হাজিরহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শেখর চন্দ্র হালদার বলেন, ‘হরেন্দ্রনাথ রায় স্ত্রীকে খুব ভালবাসতেন। কয়েকমাস আগে দুই ছেলে রেখে তাঁর স্ত্রী মারা যান। এরপর অনেকটা মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেন তিনি। স্বজনরা তাঁকে বিভিন্ন ডাক্তারের কাছে চিকিৎসা করাচ্ছিলেন’।

প্রধান শিক্ষক বলেন, ‘স্ত্রী মারা যাওয়ার পর থেকে হরেন্দ্রনাথের দুই ছেলে এক খাটে বাবাকে নিয়ে ঘুমাতো। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে বাবাকে নিয়ে দুই ছেলে ঘুমিয়ে পড়ে। এরপর আজ বুধবার ভোরে দুই ছেলেকে ঘুমে রেখে বাড়ির পাশে গোপাল রায়ের পুকুর পাড়ে গিয়ে আম গাছের সাথে রশি জড়িয়ে তিনি ফাঁস দেন’।

মনিরামপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) প্রসেনজিৎ মণ্ডল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ময়নাতদন্ত ছাড়া শেষকৃত্য সম্পন্নের জন্য মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।


Warning: Trying to access array offset on value of type bool in /home/charidik/public_html/wp-content/themes/jnews/class/Module/Block/Block_9_View.php on line 13

Related Posts

স্ত্রী হারানোর শোকে গলায় ফাঁস দিলেন শিক্ষক

মনিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি 

১১ জানুয়ারি, ২০২৩,

৫:৪২ pm

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

যশোরের মনিরামপুরে হরেন্দ্রনাথ রায় (৫৫) নামে এক স্কুল শিক্ষকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার হয়েছে।বুধবার (১১ জানুয়ারি) সকালে বাড়ির পাশে একটি আম গাছের ডালের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় স্বজনরা তাঁর মরদেহ উদ্ধার করেন।

হরেন্দ্রনাথ রায় উপজেলার পাঁচকাটিয়া গ্রামের
ভবতরন রায়ের ছেলে। তিনি হাজিরহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ছিলেন।

৩ থেকে ৪ মাস আগে স্ট্রোক করে হরেন্দ্রনাথ রায়ের স্ত্রী অঞ্জনা রায় মারা যান। তিনি স্ত্রীকে খুব ভালবাসতেন। স্ত্রীকে হারানোর শোক সইতে না পেরে তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে সহকর্মী ও স্বজনরা জানিয়েছেন।

হাজিরহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শেখর চন্দ্র হালদার বলেন, ‘হরেন্দ্রনাথ রায় স্ত্রীকে খুব ভালবাসতেন। কয়েকমাস আগে দুই ছেলে রেখে তাঁর স্ত্রী মারা যান। এরপর অনেকটা মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেন তিনি। স্বজনরা তাঁকে বিভিন্ন ডাক্তারের কাছে চিকিৎসা করাচ্ছিলেন’।

প্রধান শিক্ষক বলেন, ‘স্ত্রী মারা যাওয়ার পর থেকে হরেন্দ্রনাথের দুই ছেলে এক খাটে বাবাকে নিয়ে ঘুমাতো। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে বাবাকে নিয়ে দুই ছেলে ঘুমিয়ে পড়ে। এরপর আজ বুধবার ভোরে দুই ছেলেকে ঘুমে রেখে বাড়ির পাশে গোপাল রায়ের পুকুর পাড়ে গিয়ে আম গাছের সাথে রশি জড়িয়ে তিনি ফাঁস দেন’।

মনিরামপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) প্রসেনজিৎ মণ্ডল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ময়নাতদন্ত ছাড়া শেষকৃত্য সম্পন্নের জন্য মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।


Warning: Trying to access array offset on value of type bool in /home/charidik/public_html/wp-content/themes/jnews/class/Module/Block/Block_9_View.php on line 13

Related Posts