শনিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ভোর ৫:২১
শনিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩,ভোর ৫:২১

স্ত্রীকে নিয়ে বর্তমান ও সাবেক স্বামীর মধ্যে মারামারি!

বোয়ালমারী-আলফাডাঙ্গা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি

৫ ডিসেম্বর, ২০২২,

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

৯:৪৫ pm

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে এক স্ত্রী নিয়ে বর্তমান স্বামী ও সাবেক স্বামীর মধ্যে মারামারিতে আহত হয়েছেন চারজন। সোমবার (৫ ডিসেম্বর) উপজেলার রুপাপাত ইউনিয়নের পূর্বমোড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। আহতদের বোয়ালমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা শেষে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। মারাত্মক আহত রবেন বিশ্বাসকে (৪৫) আরো উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে।

সাবেক স্বামী রবেন বিশ্বাস মালেশিয়া প্রবাসী।

সরেজমিনে ঘুরে জানা যায়, রূপাপাত ইউনিয়নের পূর্বমোড়া গ্রামের মালেশিয়া প্রবাসী রবেন বিশ্বাসের স্ত্রী দুই সন্তানের জননী তিন মাস আগে একই গ্রামের রবিন বিশ্বাসের ছেলে নিতাই বিশ্বাস (৩২) সাথে পরকিয়ার জেরে পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করেন। পালানোর ২০ দিন পর তাদের ফিরিয়ে এনে গ্রামবাসী এক শালিস বৈঠক বসে। ওই শালিসে প্রবাসী রবেনের স্ত্রী তার পরের স্বামী নিতাই বিশ্বাসের বাড়ি যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। কিছুদিন পর রবেন বিশ্বাস দেশে ফিরে আসলে উভয় পরিবারের মধ্যে দ্বন্দ্ব শুরু হয়।

সোমবার (৫ ডিসেম্বর) সকালে রবেনের বাবা রতন বিশ্বাস (৬০) বাড়ির পাশে তেতুলিয়া মাদরাসার মোড়ে দোকানে গেলে নিতাইসহ তার লোকজন ওই বৃদ্ধের ওপর হামলা করে। এ সময় রতন বিশ্বাসের ছেলে রবেন (৪৫), বিপ্লব বিশ্বাস (৩৪), পৌর বিশ্বাস (৩৩) বাবাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে তাদেরকে মারধর করে মারাত্মক আহত করে। আহত চারজনকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। ফরিদপুর থেকে চারজনের মধ্যে রবেন বিশ্বাসকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা পাঠানো হয়েছে।

জানতে চাইলে ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. জাফর ফকির বলেন, ‘তিন মাস আগে নিতাই বিশ্বাস প্রতিবেশি রবেন বিশ্বাসের স্ত্রীকে নিয়ে পালিয়ে যায়। এ নিয়ে একবার শালিস বৈঠক হয়। বউ নিয়ে যাওয়াকে কেন্দ্র করে দুই পরিবারের মধ্যে মারামারি হয়েছে। প্রবাসী রবেনদের পরিবারের সবাই হাসপাতালে।’

ঘটনাস্থল পরিদর্শনকারী বোয়ালমারী থানার ডহরনগর ফাঁড়ি ইনচার্জ মো. আজাদ হোসেন সোমবার সন্ধ্যায় জানান, মারামারির ঘটনায় চারজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। তবে এখনো কেউ অভিযোগ দেয়নি।

Related Posts

স্ত্রীকে নিয়ে বর্তমান ও সাবেক স্বামীর মধ্যে মারামারি!

বোয়ালমারী-আলফাডাঙ্গা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি

৫ ডিসেম্বর, ২০২২,

৯:৪৫ pm

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে এক স্ত্রী নিয়ে বর্তমান স্বামী ও সাবেক স্বামীর মধ্যে মারামারিতে আহত হয়েছেন চারজন। সোমবার (৫ ডিসেম্বর) উপজেলার রুপাপাত ইউনিয়নের পূর্বমোড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। আহতদের বোয়ালমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা শেষে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। মারাত্মক আহত রবেন বিশ্বাসকে (৪৫) আরো উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে।

সাবেক স্বামী রবেন বিশ্বাস মালেশিয়া প্রবাসী।

সরেজমিনে ঘুরে জানা যায়, রূপাপাত ইউনিয়নের পূর্বমোড়া গ্রামের মালেশিয়া প্রবাসী রবেন বিশ্বাসের স্ত্রী দুই সন্তানের জননী তিন মাস আগে একই গ্রামের রবিন বিশ্বাসের ছেলে নিতাই বিশ্বাস (৩২) সাথে পরকিয়ার জেরে পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করেন। পালানোর ২০ দিন পর তাদের ফিরিয়ে এনে গ্রামবাসী এক শালিস বৈঠক বসে। ওই শালিসে প্রবাসী রবেনের স্ত্রী তার পরের স্বামী নিতাই বিশ্বাসের বাড়ি যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। কিছুদিন পর রবেন বিশ্বাস দেশে ফিরে আসলে উভয় পরিবারের মধ্যে দ্বন্দ্ব শুরু হয়।

সোমবার (৫ ডিসেম্বর) সকালে রবেনের বাবা রতন বিশ্বাস (৬০) বাড়ির পাশে তেতুলিয়া মাদরাসার মোড়ে দোকানে গেলে নিতাইসহ তার লোকজন ওই বৃদ্ধের ওপর হামলা করে। এ সময় রতন বিশ্বাসের ছেলে রবেন (৪৫), বিপ্লব বিশ্বাস (৩৪), পৌর বিশ্বাস (৩৩) বাবাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে তাদেরকে মারধর করে মারাত্মক আহত করে। আহত চারজনকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। ফরিদপুর থেকে চারজনের মধ্যে রবেন বিশ্বাসকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা পাঠানো হয়েছে।

জানতে চাইলে ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. জাফর ফকির বলেন, ‘তিন মাস আগে নিতাই বিশ্বাস প্রতিবেশি রবেন বিশ্বাসের স্ত্রীকে নিয়ে পালিয়ে যায়। এ নিয়ে একবার শালিস বৈঠক হয়। বউ নিয়ে যাওয়াকে কেন্দ্র করে দুই পরিবারের মধ্যে মারামারি হয়েছে। প্রবাসী রবেনদের পরিবারের সবাই হাসপাতালে।’

ঘটনাস্থল পরিদর্শনকারী বোয়ালমারী থানার ডহরনগর ফাঁড়ি ইনচার্জ মো. আজাদ হোসেন সোমবার সন্ধ্যায় জানান, মারামারির ঘটনায় চারজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। তবে এখনো কেউ অভিযোগ দেয়নি।

Related Posts