শনিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ভোর ৫:২৮
শনিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩,ভোর ৫:২৮

রুশ হামলায় ১৩ হাজার ইউক্রেনীয় সেনা নিহত

আন্তজার্তিক ডেস্ক

২ ডিসেম্বর, ২০২২,

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

৬:৪৯ pm

রাশিয়ার আগ্রাসন শুরুর পর থেকে টানা সংঘাতে ১৩ হাজার ইউক্রেনীয় সৈন্য নিহত হয়েছে বলে ইউক্রেনের একজন সিনিয়র কর্মকর্তা বলেছেন। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে পূর্ব ইউরোপের এই দেশটিতে রাশিয়া হামলা শুরু করে এবং এরপর থেকে টানা নয় মাসেরও বেশি সময় ধরে উভয়পক্ষের যুদ্ধ চলছে।

শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি। অবশ্য বছরের শুরুর দিকে আগ্রাসন শুরুর পর রাশিয়া প্রাথমিক ভাবে সফলতা পেলেও ইউক্রেনের হাতে পশ্চিমা অস্ত্র আসার পর থেকে অনেকটা কোণঠাসা অবস্থায় রয়েছে রুশ সেনারা।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির উপদেষ্টা মাইখাইলো পোদোলিয়াক বলেছেন, রাশিয়ার আগ্রাসন শুরুর পর থেকে ইউক্রেনের ১০ হাজার থেকে ১৩ হাজার সৈন্য মারা গেছেন। ইউক্রেনের পক্ষে হতাহতের পরিসংখ্যান প্রকাশ করার ঘটনা বেশ বিরল এবং পোদোলিয়াকের মন্তব্য দেশটির সামরিক বাহিনী নিশ্চিত করেনি।

এর আগে গত জুন মাসে প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির এই উপদেষ্টা বলেছিলেন, রাশিয়ার হামলায় প্রতিদিন ১০০ থেকে ২০০ ইউক্রেনীয় সেনা মারা যাচ্ছে। এছাড়া নভেম্বর মাসের শুরুতে মার্কিন সামরিক বাহিনীর শীর্ষ জেনারেল মার্ক মিলি বলেছিলেন, ইউক্রেনে ১ লাখেরও বেশি রাশিয়ান সামরিক কর্মী নিহত বা আহত হয়েছেন। কিয়েভের বাহিনীও সম্ভবত একই রকম হতাহতের শিকার হয়েছে বলেও জানিয়েছিলেন তিনি।

এদিকে গত বুধবার একটি ভিডিও ভাষণে ইইউ কমিশনের প্রধান উরসুলা ভন ডার লেইন বলেছেন, রাশিয়ার হামলায় ১ লাখ ইউক্রেনীয় সেনা নিহত হয়েছে। যদিও ইইউ কমিশনের একজন মুখপাত্র পরে তার এই বক্তব্য স্পষ্ট করে জানান, এটি একটি ভুল ছিল, এবং পরিসংখ্যানটিতে নিহত ও আহত উভয়কেই উল্লেখ করা হয়েছে।

ইউক্রেনীয় টিভি আউটলেট চ্যানেল ২৪-এর সাথে কথা বলার সময় মাইখাইলো পোদোলিয়াক বলেন, হামলায় ‘নিহত সেনাদের সংখ্যা নিয়ে খোলাখুলি কথা বলছে’ কিয়েভ।

তিনি বলেন, ‘আমাদের জেনারেল স্টাফের অফিসিয়াল মূল্যায়ন আছে, কমান্ডার-ইন-চিফের (প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি) অফিসিয়াল মূল্যায়ন আছে। সেগুলো অনুযায়ী বলা যায়, রুশ হামলায় ১০ হাজার থেকে ১২৫০০-১৩০০০ সেনা নিহত হয়েছেন।’

তিনি আরও বলেন, নিহত বেসামরিক মানুষের সংখ্যা ‘উল্লেখযোগ্য’ হতে পারে। বিবিসি নিউজ গত জুনের মাঝামাঝি পর্যন্ত প্রায় ৩৬০০ বেসামরিক মৃত্যুর বিষয়টি শনাক্ত করেছিল। সংখ্যাটা এখন অনেক বেশি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

পোডোলিয়াক আরও ইঙ্গিত দিয়েছেন, চলতি বছরের ২৪ ফেব্রুয়ারি আক্রমণ শুরু হওয়ার পর থেকে ইউক্রেনের হামলায় ১ লাখ রাশিয়ান সৈন্য নিহত হয়েছে এবং আরও ১ লাখ থেকে দেড় লাখ রুশ সেনা আহত হয়েছে, বা নিখোঁজ হয়েছে বা যুদ্ধে ফিরে আসতে পারেনি।

বিবিসির রাশিয়ান সার্ভিস নিশ্চিত করেছে, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি আক্রমণের পর থেকে কমপক্ষে ৯ হাজার ৩১১ রুশ সৈন্য নিহত হয়েছে। তবে যুদ্ধ শুরুর পর রুশ সেনাদের প্রাণহানির প্রকৃত সংখ্যা ১৮ হাজার ৬০০ জনের বেশি হতে পারে।

Related Posts

রুশ হামলায় ১৩ হাজার ইউক্রেনীয় সেনা নিহত

আন্তজার্তিক ডেস্ক

২ ডিসেম্বর, ২০২২,

৬:৪৯ pm

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

রাশিয়ার আগ্রাসন শুরুর পর থেকে টানা সংঘাতে ১৩ হাজার ইউক্রেনীয় সৈন্য নিহত হয়েছে বলে ইউক্রেনের একজন সিনিয়র কর্মকর্তা বলেছেন। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে পূর্ব ইউরোপের এই দেশটিতে রাশিয়া হামলা শুরু করে এবং এরপর থেকে টানা নয় মাসেরও বেশি সময় ধরে উভয়পক্ষের যুদ্ধ চলছে।

শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি। অবশ্য বছরের শুরুর দিকে আগ্রাসন শুরুর পর রাশিয়া প্রাথমিক ভাবে সফলতা পেলেও ইউক্রেনের হাতে পশ্চিমা অস্ত্র আসার পর থেকে অনেকটা কোণঠাসা অবস্থায় রয়েছে রুশ সেনারা।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির উপদেষ্টা মাইখাইলো পোদোলিয়াক বলেছেন, রাশিয়ার আগ্রাসন শুরুর পর থেকে ইউক্রেনের ১০ হাজার থেকে ১৩ হাজার সৈন্য মারা গেছেন। ইউক্রেনের পক্ষে হতাহতের পরিসংখ্যান প্রকাশ করার ঘটনা বেশ বিরল এবং পোদোলিয়াকের মন্তব্য দেশটির সামরিক বাহিনী নিশ্চিত করেনি।

এর আগে গত জুন মাসে প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির এই উপদেষ্টা বলেছিলেন, রাশিয়ার হামলায় প্রতিদিন ১০০ থেকে ২০০ ইউক্রেনীয় সেনা মারা যাচ্ছে। এছাড়া নভেম্বর মাসের শুরুতে মার্কিন সামরিক বাহিনীর শীর্ষ জেনারেল মার্ক মিলি বলেছিলেন, ইউক্রেনে ১ লাখেরও বেশি রাশিয়ান সামরিক কর্মী নিহত বা আহত হয়েছেন। কিয়েভের বাহিনীও সম্ভবত একই রকম হতাহতের শিকার হয়েছে বলেও জানিয়েছিলেন তিনি।

এদিকে গত বুধবার একটি ভিডিও ভাষণে ইইউ কমিশনের প্রধান উরসুলা ভন ডার লেইন বলেছেন, রাশিয়ার হামলায় ১ লাখ ইউক্রেনীয় সেনা নিহত হয়েছে। যদিও ইইউ কমিশনের একজন মুখপাত্র পরে তার এই বক্তব্য স্পষ্ট করে জানান, এটি একটি ভুল ছিল, এবং পরিসংখ্যানটিতে নিহত ও আহত উভয়কেই উল্লেখ করা হয়েছে।

ইউক্রেনীয় টিভি আউটলেট চ্যানেল ২৪-এর সাথে কথা বলার সময় মাইখাইলো পোদোলিয়াক বলেন, হামলায় ‘নিহত সেনাদের সংখ্যা নিয়ে খোলাখুলি কথা বলছে’ কিয়েভ।

তিনি বলেন, ‘আমাদের জেনারেল স্টাফের অফিসিয়াল মূল্যায়ন আছে, কমান্ডার-ইন-চিফের (প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি) অফিসিয়াল মূল্যায়ন আছে। সেগুলো অনুযায়ী বলা যায়, রুশ হামলায় ১০ হাজার থেকে ১২৫০০-১৩০০০ সেনা নিহত হয়েছেন।’

তিনি আরও বলেন, নিহত বেসামরিক মানুষের সংখ্যা ‘উল্লেখযোগ্য’ হতে পারে। বিবিসি নিউজ গত জুনের মাঝামাঝি পর্যন্ত প্রায় ৩৬০০ বেসামরিক মৃত্যুর বিষয়টি শনাক্ত করেছিল। সংখ্যাটা এখন অনেক বেশি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

পোডোলিয়াক আরও ইঙ্গিত দিয়েছেন, চলতি বছরের ২৪ ফেব্রুয়ারি আক্রমণ শুরু হওয়ার পর থেকে ইউক্রেনের হামলায় ১ লাখ রাশিয়ান সৈন্য নিহত হয়েছে এবং আরও ১ লাখ থেকে দেড় লাখ রুশ সেনা আহত হয়েছে, বা নিখোঁজ হয়েছে বা যুদ্ধে ফিরে আসতে পারেনি।

বিবিসির রাশিয়ান সার্ভিস নিশ্চিত করেছে, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি আক্রমণের পর থেকে কমপক্ষে ৯ হাজার ৩১১ রুশ সৈন্য নিহত হয়েছে। তবে যুদ্ধ শুরুর পর রুশ সেনাদের প্রাণহানির প্রকৃত সংখ্যা ১৮ হাজার ৬০০ জনের বেশি হতে পারে।

Related Posts