শনিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, সকাল ৬:৩১
শনিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩,সকাল ৬:৩১

মেসিদের ‘বাঁচা-মরার’ ম্যাচে প্রতিপক্ষ মেক্সিকো

স্পোর্টস ডেস্ক

২৬ নভেম্বর, ২০২২,

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

৪:২০ pm

হাতে দুই ম্যাচ। নকআউট নিশ্চিত করতে জিততেই হবে দুটোই। অন্যথায় বাড়ি ফেরার টিকিট পেয়ে যাবেন লিওনেল মেসিরা। এমনই ‘ডু অর ডাই’ ম্যাচের একটি আজ রাতে খেলতে নামবেন তারা। প্রতিপক্ষ মেক্সিকো।

সেই লুসাইল আইকনিক স্টেডিয়ামে খেলতে নামবে আর্জেন্টিনা, যেখানে সৌদি আরবের কাছে অঘটনের শিকার হয়েছে লিওনেল স্কালোনির শিষ্যরা। একই ভেন্যুতে আজ মেক্সিকো পরীক্ষা তাদের। ‘সি’ গ্রুপের ম্যাচটি মাঠে গড়াবে বাংলাদেশ সময় রাত ১টায়।

অতীত, ঐহিত্য ও বর্তমান শক্তি-সামর্থ্য, সব বিবেচনায় সৌদির চেয়ে যেমন এগিয়ে ছিল আর্জেন্টিনা, তেমনি মেক্সিকোর সঙ্গে আকাশ-পাতাল ব্যবধান আলবিসেলেস্তেদের। দুই দলের তুলনা করলে যে কেউ আজকের ম্যাচে আর্জেন্টিনাকে ‘নিরঙ্কুশ’ ফেবারিট ঘোষণা দেবে।

লোকে যাই বলুক, সেসবে মাথাব্যথা নেই স্কালোনির। আর্জেন্টাইন কোচের ভাবনায় এখন কেবল জয়। এর জন্য প্রয়োজনে একাদশে পরিবর্তন আনার কথাও ভাবছেন তিনি। স্কালোনি বলেন, ‘দলে সম্ভবত পরিবর্তন হবে। তবে যারা মাঠে নামে তাদের তাই করতে হবে যা আমরা এখন পর্যন্ত করে আসছি। এটি অবশ্যই আমাদের সঠিক পথে নিয়ে যাবে।’

শুক্রবার সংবাদ সম্মেলনে স্কালোনি আরও বলেন, ‘আগামীকাল (আজ) যারা মেক্সিকোর বিপক্ষে ম্যাচে আরও ভালো খেলতে পারবে বলে আমরা বিশ্বাস করি তারাই খেলবে। আরব ম্যাচ দিয়ে সিদ্ধান্তটি নেব না আমরা, মেক্সিকোকে নিয়ে ভাবতে হবে।’

মেক্সিকো ম্যাচে তার ছেলেরা নিজেদের কাজটা করতে পারলে জয় হাতে ধরা দেবে বলে বক্তব্য কোচের। তিনি বলেন, ‘সবকিছু আমাদের জন্য ভালো হবে, পুরো দেশ আমাদের পেছনে রয়েছে। সমস্ত দায়বদ্ধতার পাশাপাশি এই ভাবনা নিয়ে আমরা একটি ফুটবল ম্যাচ খেলি।’

স্কালোনি বলেন, ‘এটাও জানি, যারা মাঠে নামবে তাদের প্রত্যেকে ঘামের শেষ ফোঁটা ফেলে যাবে। এ নিয়ে কখনোই আমাদের কোনো সন্দেহ থাকে না। বর্তমান পরিস্থিতি থেকে ঘুরে দাঁড়াতে এই দল শেষ মিনিট পর্যন্ত লড়বে। খেলতে হবে এবং আমাদের দেখাতে হবে যে আমরা ভালো অবস্থায় আছি।’

মেসির চোট পাওয়ার গুঞ্জনটাও উড়িয়ে দিয়েছেন স্কালোনি, ‘আমি জানি না এটা কোথা থেকে এসেছে যে মেসি গতকাল (বৃহস্পতিবার) ট্রেনিং করেনি। সে ভালো আছে। অবশ্যই সবকিছু ঠিকঠাক হবে। এ নিয়ে আমাদের কোনো সন্দেহ নেই। শারীরিকভাবে সে ভালো আছে। কোনো সমস্যা নেই।’

ম্যাচ ফ্যাক্ট :

* সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে মেক্সিকোর বিপক্ষে সবশেষ ১০ ম্যাচে অপরাজেয় আর্জেন্টিনা (৭ জয়, ৩ ড্র)। সবশেষ হেরেছে ২০০৪ কোপা আমেরিকায়, ১-০ ব্যবধানে।

* মেক্সিকো আর্জেন্টিনার বিপক্ষে তাদের বিশ্বকাপ ম্যাচের প্রতিটি হেরেছে: ১৯৩০ সালে ৬-৩, ২০০৬ সালে ৩-১ এবং ২০১০ সালে ৩-১ ব্যবধানে।

* সৌদি আরবের কাছে হেরে টুর্নামেন্ট শুরু করেছে আর্জেন্টিনা। বিশ্বকাপে টানা ম্যাচ পর এই প্রথম নন-ইউরোপিয়ান দেশের বিপক্ষে হারের স্বাদ পেল তারা। এর আগের হারটা এসেছিল ১৯৯০ সালে, ক্যামেরুনের বিপক্ষে। এখন পর্যন্ত বিশ্বকাপ ম্যাচে কখনোই নন-ইউরোপিয়ান দেশের বিপক্ষে টানা হারেনি আর্জেন্টিনার।

* আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপে তাদের সবশেষ ছয় ম্যাচের চারটিতে হেরেছে (১ জয়, ১ড্র)। অথচ টুর্নামেন্টে এর আগের ২৫ ম্যাচে সমান সংখ্যক হার দেখেছে তারা (১৬ জয়, ৫ ড্র)।

* বিশ্বকাপ ইতিহাসে এক সংস্করণে কখনোই নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচে হারতে হয়নি আর্জেন্টিনার।

* মেক্সিকো তাদের সবশেষ তিন বিশ্বকাপ ম্যাচের একটিতেও গোল করতে পারেনি। টুর্নামেন্টে কখনোই টানা চার ম্যাচ গোলশূন্য থাকতে হয়নি তাদের।

* সৌদি আরবের বিপক্ষে ২-১ গোলে হারের ম্যাচে ১০ বার অফসাইডের ফাঁদে পড়েছে আর্জেন্টাইন খেলোয়াড়রা। ১৯৬৬ সালের পর এমন ঘটনা এই প্রথমবার ঘটেছে।

* সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে আর্জেন্টিনার পাঁচ ম্যাচের প্রতিটিতে জালের দেখা পেয়েছেন লিওনেল মেসি। এর আগে ২০১১ নভেম্বর থেকে ২০১২ সেপ্টেম্বরের মধ্যে টানা ৬ ম্যাচ জাতীয় দলের জার্সিতে গোল করেছিলেন তিনি। কাতারে আর একটি গোল পেলে টুর্নামেন্টে আর্জেন্টিনার হয়ে ৮ গোল করা ডিয়েগো ম্যারাডোনা এবং গুলের্মো স্ট্যাবিলকে স্পর্শ করবেন মেসি। তাদের উপরে থাকবেন কেবল গ্যাব্রিয়েল বাতিস্তুতা (১০)।

Related Posts

মেসিদের ‘বাঁচা-মরার’ ম্যাচে প্রতিপক্ষ মেক্সিকো

স্পোর্টস ডেস্ক

২৬ নভেম্বর, ২০২২,

৪:২০ pm

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

হাতে দুই ম্যাচ। নকআউট নিশ্চিত করতে জিততেই হবে দুটোই। অন্যথায় বাড়ি ফেরার টিকিট পেয়ে যাবেন লিওনেল মেসিরা। এমনই ‘ডু অর ডাই’ ম্যাচের একটি আজ রাতে খেলতে নামবেন তারা। প্রতিপক্ষ মেক্সিকো।

সেই লুসাইল আইকনিক স্টেডিয়ামে খেলতে নামবে আর্জেন্টিনা, যেখানে সৌদি আরবের কাছে অঘটনের শিকার হয়েছে লিওনেল স্কালোনির শিষ্যরা। একই ভেন্যুতে আজ মেক্সিকো পরীক্ষা তাদের। ‘সি’ গ্রুপের ম্যাচটি মাঠে গড়াবে বাংলাদেশ সময় রাত ১টায়।

অতীত, ঐহিত্য ও বর্তমান শক্তি-সামর্থ্য, সব বিবেচনায় সৌদির চেয়ে যেমন এগিয়ে ছিল আর্জেন্টিনা, তেমনি মেক্সিকোর সঙ্গে আকাশ-পাতাল ব্যবধান আলবিসেলেস্তেদের। দুই দলের তুলনা করলে যে কেউ আজকের ম্যাচে আর্জেন্টিনাকে ‘নিরঙ্কুশ’ ফেবারিট ঘোষণা দেবে।

লোকে যাই বলুক, সেসবে মাথাব্যথা নেই স্কালোনির। আর্জেন্টাইন কোচের ভাবনায় এখন কেবল জয়। এর জন্য প্রয়োজনে একাদশে পরিবর্তন আনার কথাও ভাবছেন তিনি। স্কালোনি বলেন, ‘দলে সম্ভবত পরিবর্তন হবে। তবে যারা মাঠে নামে তাদের তাই করতে হবে যা আমরা এখন পর্যন্ত করে আসছি। এটি অবশ্যই আমাদের সঠিক পথে নিয়ে যাবে।’

শুক্রবার সংবাদ সম্মেলনে স্কালোনি আরও বলেন, ‘আগামীকাল (আজ) যারা মেক্সিকোর বিপক্ষে ম্যাচে আরও ভালো খেলতে পারবে বলে আমরা বিশ্বাস করি তারাই খেলবে। আরব ম্যাচ দিয়ে সিদ্ধান্তটি নেব না আমরা, মেক্সিকোকে নিয়ে ভাবতে হবে।’

মেক্সিকো ম্যাচে তার ছেলেরা নিজেদের কাজটা করতে পারলে জয় হাতে ধরা দেবে বলে বক্তব্য কোচের। তিনি বলেন, ‘সবকিছু আমাদের জন্য ভালো হবে, পুরো দেশ আমাদের পেছনে রয়েছে। সমস্ত দায়বদ্ধতার পাশাপাশি এই ভাবনা নিয়ে আমরা একটি ফুটবল ম্যাচ খেলি।’

স্কালোনি বলেন, ‘এটাও জানি, যারা মাঠে নামবে তাদের প্রত্যেকে ঘামের শেষ ফোঁটা ফেলে যাবে। এ নিয়ে কখনোই আমাদের কোনো সন্দেহ থাকে না। বর্তমান পরিস্থিতি থেকে ঘুরে দাঁড়াতে এই দল শেষ মিনিট পর্যন্ত লড়বে। খেলতে হবে এবং আমাদের দেখাতে হবে যে আমরা ভালো অবস্থায় আছি।’

মেসির চোট পাওয়ার গুঞ্জনটাও উড়িয়ে দিয়েছেন স্কালোনি, ‘আমি জানি না এটা কোথা থেকে এসেছে যে মেসি গতকাল (বৃহস্পতিবার) ট্রেনিং করেনি। সে ভালো আছে। অবশ্যই সবকিছু ঠিকঠাক হবে। এ নিয়ে আমাদের কোনো সন্দেহ নেই। শারীরিকভাবে সে ভালো আছে। কোনো সমস্যা নেই।’

ম্যাচ ফ্যাক্ট :

* সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে মেক্সিকোর বিপক্ষে সবশেষ ১০ ম্যাচে অপরাজেয় আর্জেন্টিনা (৭ জয়, ৩ ড্র)। সবশেষ হেরেছে ২০০৪ কোপা আমেরিকায়, ১-০ ব্যবধানে।

* মেক্সিকো আর্জেন্টিনার বিপক্ষে তাদের বিশ্বকাপ ম্যাচের প্রতিটি হেরেছে: ১৯৩০ সালে ৬-৩, ২০০৬ সালে ৩-১ এবং ২০১০ সালে ৩-১ ব্যবধানে।

* সৌদি আরবের কাছে হেরে টুর্নামেন্ট শুরু করেছে আর্জেন্টিনা। বিশ্বকাপে টানা ম্যাচ পর এই প্রথম নন-ইউরোপিয়ান দেশের বিপক্ষে হারের স্বাদ পেল তারা। এর আগের হারটা এসেছিল ১৯৯০ সালে, ক্যামেরুনের বিপক্ষে। এখন পর্যন্ত বিশ্বকাপ ম্যাচে কখনোই নন-ইউরোপিয়ান দেশের বিপক্ষে টানা হারেনি আর্জেন্টিনার।

* আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপে তাদের সবশেষ ছয় ম্যাচের চারটিতে হেরেছে (১ জয়, ১ড্র)। অথচ টুর্নামেন্টে এর আগের ২৫ ম্যাচে সমান সংখ্যক হার দেখেছে তারা (১৬ জয়, ৫ ড্র)।

* বিশ্বকাপ ইতিহাসে এক সংস্করণে কখনোই নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচে হারতে হয়নি আর্জেন্টিনার।

* মেক্সিকো তাদের সবশেষ তিন বিশ্বকাপ ম্যাচের একটিতেও গোল করতে পারেনি। টুর্নামেন্টে কখনোই টানা চার ম্যাচ গোলশূন্য থাকতে হয়নি তাদের।

* সৌদি আরবের বিপক্ষে ২-১ গোলে হারের ম্যাচে ১০ বার অফসাইডের ফাঁদে পড়েছে আর্জেন্টাইন খেলোয়াড়রা। ১৯৬৬ সালের পর এমন ঘটনা এই প্রথমবার ঘটেছে।

* সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে আর্জেন্টিনার পাঁচ ম্যাচের প্রতিটিতে জালের দেখা পেয়েছেন লিওনেল মেসি। এর আগে ২০১১ নভেম্বর থেকে ২০১২ সেপ্টেম্বরের মধ্যে টানা ৬ ম্যাচ জাতীয় দলের জার্সিতে গোল করেছিলেন তিনি। কাতারে আর একটি গোল পেলে টুর্নামেন্টে আর্জেন্টিনার হয়ে ৮ গোল করা ডিয়েগো ম্যারাডোনা এবং গুলের্মো স্ট্যাবিলকে স্পর্শ করবেন মেসি। তাদের উপরে থাকবেন কেবল গ্যাব্রিয়েল বাতিস্তুতা (১০)।

Related Posts