শনিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, সকাল ৬:০৯
শনিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩,সকাল ৬:০৯

বাড়ির সীমানা নিয়ে বিরোধ, দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৫

মহিদুল ইসলাম, শরণখোলা (বাগেরহাট)

২৬ নভেম্বর, ২০২২,

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

৪:০৯ pm

বাগেরহাটের শরণখোলায় জমির সীমানা নিয়ে বিরোধের জেরে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে ৫ জন জখম হয়েছেন। শনিবার (২৬ নভেম্বর) দুপুরে উপজেলার খোন্তাকাটা ইউনিয়নের গোলবুনিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন, আব্দুস সত্তার তালুকদার (৭৩) ও তার দুই ছেলে সগীর হোসেন তালুকদার (৪০), কবির তালুকদার (৩৮) এবং প্রতিপক্ষের আবুল হোসেন তালুকদারের ছেলে আসাদুজ্জামান রাব্বি (২৫)। গুরুতর জখম এই ৪ জনকে শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া আ. লতিফ তালুকদার (৯৪) শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

আহত সগীর হোসেন তালুকদার বলেন, ‘আমার চাচা আবুল হোসেন তালুকদারের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে বসতবাড়ির সীমানাসহ জমি নিয়ে বিরোধ চলছে। তারা জোরপূর্বক আমাদের বাড়ির মধ্যে জমি দখল করে বেড়া নির্মাণ করেন। সেই বেড়া নিয়ে তাদের সঙ্গে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে চাচাতো ভাই আসাদুজ্জামান রাব্বি, বাপ্পি, লতিফ তালুকদার এবং চাচি হাসিনা বেগম দা, লাঠিসোটা নিয়ে আমাদের ওপর আক্রমণ করে। তারা এলোপাতাড়ি কুপিয়ে আমার বাবা ও দুই ভাই রক্তাক্ত জখম করে। এ সময় প্রতিপক্ষের কারো ওপর আমরা হামলা করিনি।’

শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লক্সের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. শাহানা রহমান বলেন, ‘আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ৪ জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিক্যালে পাঠানো হয়েছে। এদের মধ্যে ৩ জনের মাথা ও বুকে গুরুতর জখম রয়েছে।’

শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইকরাম হোসেন বলেন, ‘আহতরা থানায় এসে মৌখিক অভিযোগ করলে তাদের চিকিৎসার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলা হলে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

Related Posts

বাড়ির সীমানা নিয়ে বিরোধ, দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৫

মহিদুল ইসলাম, শরণখোলা (বাগেরহাট)

২৬ নভেম্বর, ২০২২,

৪:০৯ pm

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

বাগেরহাটের শরণখোলায় জমির সীমানা নিয়ে বিরোধের জেরে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে ৫ জন জখম হয়েছেন। শনিবার (২৬ নভেম্বর) দুপুরে উপজেলার খোন্তাকাটা ইউনিয়নের গোলবুনিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন, আব্দুস সত্তার তালুকদার (৭৩) ও তার দুই ছেলে সগীর হোসেন তালুকদার (৪০), কবির তালুকদার (৩৮) এবং প্রতিপক্ষের আবুল হোসেন তালুকদারের ছেলে আসাদুজ্জামান রাব্বি (২৫)। গুরুতর জখম এই ৪ জনকে শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া আ. লতিফ তালুকদার (৯৪) শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

আহত সগীর হোসেন তালুকদার বলেন, ‘আমার চাচা আবুল হোসেন তালুকদারের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে বসতবাড়ির সীমানাসহ জমি নিয়ে বিরোধ চলছে। তারা জোরপূর্বক আমাদের বাড়ির মধ্যে জমি দখল করে বেড়া নির্মাণ করেন। সেই বেড়া নিয়ে তাদের সঙ্গে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে চাচাতো ভাই আসাদুজ্জামান রাব্বি, বাপ্পি, লতিফ তালুকদার এবং চাচি হাসিনা বেগম দা, লাঠিসোটা নিয়ে আমাদের ওপর আক্রমণ করে। তারা এলোপাতাড়ি কুপিয়ে আমার বাবা ও দুই ভাই রক্তাক্ত জখম করে। এ সময় প্রতিপক্ষের কারো ওপর আমরা হামলা করিনি।’

শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লক্সের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. শাহানা রহমান বলেন, ‘আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ৪ জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিক্যালে পাঠানো হয়েছে। এদের মধ্যে ৩ জনের মাথা ও বুকে গুরুতর জখম রয়েছে।’

শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইকরাম হোসেন বলেন, ‘আহতরা থানায় এসে মৌখিক অভিযোগ করলে তাদের চিকিৎসার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলা হলে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

Related Posts