রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, সকাল ৮:৪০
রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২,সকাল ৮:৪০

দাদার অপচিকিৎসায় প্রাণ গেল নাতির

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি

৯ নভেম্বর, ২০২২,

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

৯:০৬ pm

চুয়াডাঙ্গায় সাপের কামড়ে কারিমুল ইসলাম (১৬) নামের এক স্কুল ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (৯ নভেম্বর) বিকেলে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃতঘোষণা করেন।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, সোমবার দুপুরে বাড়ির অদূরে একটি মাঠে খেলা করার সময় বিষধর সাপে কারিমুরের পায়ে কামড় দেয়। তখন তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা না দিয়ে দুই দিন বাড়িতে রেখে দাদা আব্দুল কাদের অপচিকিৎসা (ঝাড়ফোক) দেয়। এতে কারিমুলের অবস্থা আরো খারাপ হলে বুধবার দুপুরে সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

নিহত কারিমুল চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার পারকৃঞ্চপুর-মদনা ইউনিয়নের বারাদি গ্রামের কামারপাড়ার তরিকুল ইসলামের ছেলে। সে একই গ্রামের একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির ছাত্র ছিল।

তার মা কুলছুম বেগম বলেন, সোমবার দাপুরে বাড়ির অদূরে খেলতে যায় কারিমুল ইসলাম। এ সময় একটি বিষধর সাপ তাকে বাম পায়ে কামড় দেয়। আমরা দরিদ্র হওয়ায় আমার চাচা শ্বশুর আব্দুল কাদের আমার ছেলেকে সারিয়ে দেবে বলে দু’দিন ধরে ঝাড়ফুক দেয়। আজ সকালে কারিমুল ইসলামের অবস্থার অবনতি হলে তাকে ছেড়ে দেয়। আমরা কারিমুলকে নিয়ে জীবননগর উপজেলার গহেরপুর গ্রামে এক কবিরাজের কাছে নিয়ে যাই।

কারিমুলের অবস্থা খারাপ দেখে ওই কবিরাজ তাকে সদর হাসপাতালে নিতে বলেন। চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিলে জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. সাদিয়া মা আরিজ বলেন, হাসপাতালে আনার আগেই ওই ছেলেটি মারা গেছে।

দর্শনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এএইচএম লুৎফুল কবীর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ওই ঘটনায় থানায় কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Related Posts

দাদার অপচিকিৎসায় প্রাণ গেল নাতির

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি

৯ নভেম্বর, ২০২২,

৯:০৬ pm

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

চুয়াডাঙ্গায় সাপের কামড়ে কারিমুল ইসলাম (১৬) নামের এক স্কুল ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (৯ নভেম্বর) বিকেলে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃতঘোষণা করেন।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, সোমবার দুপুরে বাড়ির অদূরে একটি মাঠে খেলা করার সময় বিষধর সাপে কারিমুরের পায়ে কামড় দেয়। তখন তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা না দিয়ে দুই দিন বাড়িতে রেখে দাদা আব্দুল কাদের অপচিকিৎসা (ঝাড়ফোক) দেয়। এতে কারিমুলের অবস্থা আরো খারাপ হলে বুধবার দুপুরে সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

নিহত কারিমুল চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার পারকৃঞ্চপুর-মদনা ইউনিয়নের বারাদি গ্রামের কামারপাড়ার তরিকুল ইসলামের ছেলে। সে একই গ্রামের একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির ছাত্র ছিল।

তার মা কুলছুম বেগম বলেন, সোমবার দাপুরে বাড়ির অদূরে খেলতে যায় কারিমুল ইসলাম। এ সময় একটি বিষধর সাপ তাকে বাম পায়ে কামড় দেয়। আমরা দরিদ্র হওয়ায় আমার চাচা শ্বশুর আব্দুল কাদের আমার ছেলেকে সারিয়ে দেবে বলে দু’দিন ধরে ঝাড়ফুক দেয়। আজ সকালে কারিমুল ইসলামের অবস্থার অবনতি হলে তাকে ছেড়ে দেয়। আমরা কারিমুলকে নিয়ে জীবননগর উপজেলার গহেরপুর গ্রামে এক কবিরাজের কাছে নিয়ে যাই।

কারিমুলের অবস্থা খারাপ দেখে ওই কবিরাজ তাকে সদর হাসপাতালে নিতে বলেন। চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিলে জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. সাদিয়া মা আরিজ বলেন, হাসপাতালে আনার আগেই ওই ছেলেটি মারা গেছে।

দর্শনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এএইচএম লুৎফুল কবীর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ওই ঘটনায় থানায় কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Related Posts