মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, সন্ধ্যা ৬:২২
মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২,সন্ধ্যা ৬:২২

গৃহবধুকে হত্যার পর গাছে ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ

মো. সাহাজুল ইসলাম, রাণীনগর (নওগাঁ)

৫ অক্টোবর, ২০২২,

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

৬:৫৬ pm

নওগাঁর রাণীনগরে যৌতুকের দাবিতে রিয়ামুনি (২০) নামে এক গৃহবধুকে পিটিয়ে হত্যার পর গাছে ঝুলে রাখার অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বুধবার দুপুরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (নওগাঁ সদর সার্কেল) ও থানাপুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শণ শেষে ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছেন।
 
 গৃহবধু রিয়ামুনি উপজেলার ছাতারদীঘি গ্রামের নুরমোহাম্মদের ছেলে মিলন হোসেনের (২১) স্ত্রী ও একই উপজেলার একডালা ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামের রুবেল ফকিরের মেয়ে।
রিয়ার দাদা আফজাল হোসেন (৭০) বলেন,বিয়ের পর থেকেই কারনে অকারনে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে দ্বন্দ্ব চলছিল। বেশ কয়েকবার নিরসনও করা হয়েছে। হঠাৎ করেই বুধবার সকালে মোবাইল ফোনে জানতে পারেন রিয়া মারা গেছে।
তিনি বলেন,রিয়াকে হত্যার পর গলায় রশি দিয়ে গাছের সাথে ঝুলে রেখেছে।
 
রিয়ার ছোট ভাই রিফাত হোসেন (১৫) বলেন, ‘আমি প্রায় সময় বোন-দুলাভাইয়ের বাড়িতে এসে থাকতাম। দুলাভাই নিয়মিত গাঁজা-হেরোইন খেতো এবং তাসের মাধ্যমে জুয়া খেলত। নেশাগ্রস্ত অবস্থায় রাতে বাড়িতে এসে বোনের উপর অত্যাচার করত এবং বেশ কয়েকবার আমার সামনে হত্যার হুমকিও দিয়েছিল’। 
 
রিয়ার শ্বাশুড়ী মনেকা বিবি বলেন, ‘প্রায় দুই বছর আগে একই উপজেলার একডালা ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামের রুবেল ফকিরের মেয়ে রিয়া আক্তারের সাথে আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ে হয়। মঙ্গলবার বিকেলে টাকা পয়সা নিয়ে ছেলে এবং বউয়ের মধ্যে দ্বন্দ্ব হয়েছে। এরপর রাতে ছেলে এবং বউ একসাথে ঘুমিয়ে পরে। রাত অনুমান পৌনে ১২টা নাগাদ বউ নিখোঁজ হয়। এর পর সকালে বাড়ির উত্তর দিকে অদুরে মাঠের মধ্যে আমগাছে ঝুলন্ত মরদেহ পাওয়া যায়। 
রাণীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘যৌতুকের দাবিতে রিয়াকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে বাবা রুবেল ফকির বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। নওগাঁ জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (নওগাঁ সদর সার্কেল) মো: রকিবুল হাসান ইবনে রহমানসহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।
তবে স্বামীসহ স্বজনরা পলাতক থাকায় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি’।

Related Posts

গৃহবধুকে হত্যার পর গাছে ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ

মো. সাহাজুল ইসলাম, রাণীনগর (নওগাঁ)

৫ অক্টোবর, ২০২২,

৬:৫৬ pm

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

নওগাঁর রাণীনগরে যৌতুকের দাবিতে রিয়ামুনি (২০) নামে এক গৃহবধুকে পিটিয়ে হত্যার পর গাছে ঝুলে রাখার অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বুধবার দুপুরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (নওগাঁ সদর সার্কেল) ও থানাপুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শণ শেষে ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছেন।
 
 গৃহবধু রিয়ামুনি উপজেলার ছাতারদীঘি গ্রামের নুরমোহাম্মদের ছেলে মিলন হোসেনের (২১) স্ত্রী ও একই উপজেলার একডালা ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামের রুবেল ফকিরের মেয়ে।
রিয়ার দাদা আফজাল হোসেন (৭০) বলেন,বিয়ের পর থেকেই কারনে অকারনে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে দ্বন্দ্ব চলছিল। বেশ কয়েকবার নিরসনও করা হয়েছে। হঠাৎ করেই বুধবার সকালে মোবাইল ফোনে জানতে পারেন রিয়া মারা গেছে।
তিনি বলেন,রিয়াকে হত্যার পর গলায় রশি দিয়ে গাছের সাথে ঝুলে রেখেছে।
 
রিয়ার ছোট ভাই রিফাত হোসেন (১৫) বলেন, ‘আমি প্রায় সময় বোন-দুলাভাইয়ের বাড়িতে এসে থাকতাম। দুলাভাই নিয়মিত গাঁজা-হেরোইন খেতো এবং তাসের মাধ্যমে জুয়া খেলত। নেশাগ্রস্ত অবস্থায় রাতে বাড়িতে এসে বোনের উপর অত্যাচার করত এবং বেশ কয়েকবার আমার সামনে হত্যার হুমকিও দিয়েছিল’। 
 
রিয়ার শ্বাশুড়ী মনেকা বিবি বলেন, ‘প্রায় দুই বছর আগে একই উপজেলার একডালা ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামের রুবেল ফকিরের মেয়ে রিয়া আক্তারের সাথে আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ে হয়। মঙ্গলবার বিকেলে টাকা পয়সা নিয়ে ছেলে এবং বউয়ের মধ্যে দ্বন্দ্ব হয়েছে। এরপর রাতে ছেলে এবং বউ একসাথে ঘুমিয়ে পরে। রাত অনুমান পৌনে ১২টা নাগাদ বউ নিখোঁজ হয়। এর পর সকালে বাড়ির উত্তর দিকে অদুরে মাঠের মধ্যে আমগাছে ঝুলন্ত মরদেহ পাওয়া যায়। 
রাণীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘যৌতুকের দাবিতে রিয়াকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে বাবা রুবেল ফকির বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। নওগাঁ জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (নওগাঁ সদর সার্কেল) মো: রকিবুল হাসান ইবনে রহমানসহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।
তবে স্বামীসহ স্বজনরা পলাতক থাকায় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি’।

Related Posts