রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, সকাল ৭:৩৫
রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২,সকাল ৭:৩৫

৫ মিনিটের ব্যবধানে মা-ছেলের মৃত্যু

মনিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি :

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২,

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

৪:৩৬ pm

যশোরের মনিরামপুরে মায়ের মৃত্যুর খবর শুনে ৫ মিনিটের ব্যবধানে ছেলের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। গত মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর)  দিবাগত রাত পৌনে ১০টার দিকে হানুয়ার গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আজ বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টায় হানুয়ার হাফিজিয়া মাদরাসা মাঠে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে পাশাপাশি মা-ছেলের দাফন সম্পন্ন হয়েছে।এদিকে ৫ মিনিটের ব্যবধানে মা-ছেলের মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

নিহত মা-ছেলের নাম জাহানারা বেগম (৮০) ও আব্দুর রহিম (৬০)। জানাহারা বেগম হানুয়ার গ্রামের কায়েম মোল্লার স্ত্রী।স্থানীয় ঝাঁপা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান সামছুল হক মন্টু ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

আব্দুর রহিমের ছেলে প্রকৌশলী সোহেল রানা বলেন, ‘বার্ধক্য জনিত কারণে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে আমার দাদি মারা যান। দাদি দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন। ঘরের বারান্দায় দাদির মরদেহ রাখা ছিল। আমার বাবা এজমার রোগী ছিলেন, কিন্তু ততটা অসুস্থ না। দাদি মৃত্যু শয্যায় থাকায় বাবা মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে অসুস্থ বোধ করছিলেন। এজন্য বাবাকে ঘরে চেয়ারে বসিয়ে রাখা হয়েছিল। দাদির মৃত্যুর খবর পাওয়া মাত্র ৫-৬ মিনিটের মাথায় বাবা মারা গেছেন’।

সোহেল রানা বলেন, ছোটবেলা থেকে দেখেছি দাদিকে বাবা খুব ভালবাসতেন। দাদি কোন কিছু খেতে চাইলে যত কষ্ট হোক বাবা তা পূরণ করতেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় যখন দাদি মৃত্যু শয্যায়, তখন বাবা তাঁর পাশে গিয়ে বলেছিলেন, ‘মা, তুমি যাও, আমিও আসছি। এরপর দাদি মারা যাওয়ার পরপরই বাবা মারা গেছেন। ঘটনাটি আমাদের কাছে অলৌকিক মনে হয়েছে’।

স্থানীয় ঝাঁপা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান সামছুল হক মন্টু বলেন, ‘বার্ধক্য জনিত কারণে মঙ্গলবার রাতে আব্দুর রহিমের মৃত্য হয়েছে। মা’র শোকে স্ট্রোক করে কিছুক্ষণ পরে আব্দুর রহিম মারা গেছেন’।

Related Posts

৫ মিনিটের ব্যবধানে মা-ছেলের মৃত্যু

মনিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি :

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২,

৪:৩৬ pm

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

যশোরের মনিরামপুরে মায়ের মৃত্যুর খবর শুনে ৫ মিনিটের ব্যবধানে ছেলের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। গত মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর)  দিবাগত রাত পৌনে ১০টার দিকে হানুয়ার গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আজ বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টায় হানুয়ার হাফিজিয়া মাদরাসা মাঠে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে পাশাপাশি মা-ছেলের দাফন সম্পন্ন হয়েছে।এদিকে ৫ মিনিটের ব্যবধানে মা-ছেলের মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

নিহত মা-ছেলের নাম জাহানারা বেগম (৮০) ও আব্দুর রহিম (৬০)। জানাহারা বেগম হানুয়ার গ্রামের কায়েম মোল্লার স্ত্রী।স্থানীয় ঝাঁপা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান সামছুল হক মন্টু ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

আব্দুর রহিমের ছেলে প্রকৌশলী সোহেল রানা বলেন, ‘বার্ধক্য জনিত কারণে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে আমার দাদি মারা যান। দাদি দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন। ঘরের বারান্দায় দাদির মরদেহ রাখা ছিল। আমার বাবা এজমার রোগী ছিলেন, কিন্তু ততটা অসুস্থ না। দাদি মৃত্যু শয্যায় থাকায় বাবা মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে অসুস্থ বোধ করছিলেন। এজন্য বাবাকে ঘরে চেয়ারে বসিয়ে রাখা হয়েছিল। দাদির মৃত্যুর খবর পাওয়া মাত্র ৫-৬ মিনিটের মাথায় বাবা মারা গেছেন’।

সোহেল রানা বলেন, ছোটবেলা থেকে দেখেছি দাদিকে বাবা খুব ভালবাসতেন। দাদি কোন কিছু খেতে চাইলে যত কষ্ট হোক বাবা তা পূরণ করতেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় যখন দাদি মৃত্যু শয্যায়, তখন বাবা তাঁর পাশে গিয়ে বলেছিলেন, ‘মা, তুমি যাও, আমিও আসছি। এরপর দাদি মারা যাওয়ার পরপরই বাবা মারা গেছেন। ঘটনাটি আমাদের কাছে অলৌকিক মনে হয়েছে’।

স্থানীয় ঝাঁপা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান সামছুল হক মন্টু বলেন, ‘বার্ধক্য জনিত কারণে মঙ্গলবার রাতে আব্দুর রহিমের মৃত্য হয়েছে। মা’র শোকে স্ট্রোক করে কিছুক্ষণ পরে আব্দুর রহিম মারা গেছেন’।

Related Posts