রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, সকাল ৭:৫৬
রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২,সকাল ৭:৫৬

বোয়ালমারীতে গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

বোয়ালমারী-আলফাডাঙ্গা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি

১৪ জুলাই, ২০২২,

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

৬:১৯ pm

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে দুই সন্তানের জননী চায়না বেগম (২৩) নামে এক গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ওই গৃহবধূ উপজেলার ময়না ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের বান্দুগ্রামের মারুফ মোল্যার স্ত্রী। মারুফ মোল্যা পেশায় শ্রমিক।

আজ বৃহস্পতিবার ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

এলাকাবাসী ও থানা সূত্রে জানা যায়, বুধবার (১৩ জুলাই) রাতে বাচ্চাদের স্মার্টফোন ব্যবহারকে কেন্দ্র করে স্বামীর সাথে ঝগড়া হয় চায়নার। বৃহস্পতিবার সকালে তাকে বাড়ির দক্ষিণ পাশে আমগাছের ডালের সাথে গামছা দিয়ে ফাঁস অবস্থায় দেখতে পায় প্রতিবেশিরা। পরে থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। তবে ফাঁস দেওয়া আমগাছের উচ্চতা সাড়ে ৪ ফিট। সেখানে ওই গৃহবধূর উচ্চতা সাড়ে ৪ ফুট বলে মরদেহ উদ্ধারকারী কর্মকর্তা জানান।

মরদেহ উদ্ধারকারী কর্মকর্তা থানার উপপরিদর্শক মো. মনিরুজ্জামান জানান, বৃহস্পতিবার সকালে খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, বুধবার দিবাগত রাতের কোন এক সময় এ ঘটনা ঘটেছে। প্রাথমিক পর্যায়ে স্বামী বাদী হয়ে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা করেছেন। ময়নাতদন্তের রিপোর্টের পর মৃত্যুর বিষয়ে অন্য কোন ঘটনা থাকলে সেভাবে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Related Posts

বোয়ালমারীতে গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

বোয়ালমারী-আলফাডাঙ্গা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি

১৪ জুলাই, ২০২২,

৬:১৯ pm

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে দুই সন্তানের জননী চায়না বেগম (২৩) নামে এক গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ওই গৃহবধূ উপজেলার ময়না ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের বান্দুগ্রামের মারুফ মোল্যার স্ত্রী। মারুফ মোল্যা পেশায় শ্রমিক।

আজ বৃহস্পতিবার ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

এলাকাবাসী ও থানা সূত্রে জানা যায়, বুধবার (১৩ জুলাই) রাতে বাচ্চাদের স্মার্টফোন ব্যবহারকে কেন্দ্র করে স্বামীর সাথে ঝগড়া হয় চায়নার। বৃহস্পতিবার সকালে তাকে বাড়ির দক্ষিণ পাশে আমগাছের ডালের সাথে গামছা দিয়ে ফাঁস অবস্থায় দেখতে পায় প্রতিবেশিরা। পরে থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। তবে ফাঁস দেওয়া আমগাছের উচ্চতা সাড়ে ৪ ফিট। সেখানে ওই গৃহবধূর উচ্চতা সাড়ে ৪ ফুট বলে মরদেহ উদ্ধারকারী কর্মকর্তা জানান।

মরদেহ উদ্ধারকারী কর্মকর্তা থানার উপপরিদর্শক মো. মনিরুজ্জামান জানান, বৃহস্পতিবার সকালে খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, বুধবার দিবাগত রাতের কোন এক সময় এ ঘটনা ঘটেছে। প্রাথমিক পর্যায়ে স্বামী বাদী হয়ে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা করেছেন। ময়নাতদন্তের রিপোর্টের পর মৃত্যুর বিষয়ে অন্য কোন ঘটনা থাকলে সেভাবে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Related Posts