মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, বিকাল ৫:৩৬
মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২,বিকাল ৫:৩৬

গামছা উড়িয়ে থামানো হলো ট্রেন, বড় দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি

১২ জুলাই, ২০২২,

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

৮:৪৬ pm

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে রেললাইন ভাঙ্গা দেখে গামছা উড়িয়ে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা ঈদ স্পেশাল ট্রেনের যাত্রীদের প্রাণ রক্ষা করেছেন দুই ব্যক্তি।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা-ময়মনসিংহ রেলপথের মশাখালী-কাওরাইদ স্টেশনের মধ্যবর্তী লংগাইর ইউনিয়নের গোলাবাড়ি ১৩৫নং ফরচুঙ্গির ব্রিজে এই ঘটনা ঘটে।

এর পূর্বে গত ০২ জুন একই রেলপথের গফরগাঁও-মশাখালী স্টেশনের মধ্যবর্তী হাতীখলা বাজারে রেললাইন ভাঙ্গা থাকায় ট্রেন চলাচল বিঘ্নিত হয়েছিল।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বেলা ১২টার দিকে স্থানীয় লোকজন পায়ে হেটে ব্রিজ পারাপারের সময় ব্রিজের উপর দুই লাইনের সংযোগস্থলে প্রায় ১০ ইঞ্চি পরিমাণ রেললাইন ভাঙ্গা দেখতে পান। এ সময় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা দেওয়ানগঞ্জগামী ঈদ স্পেশাল ট্রেন আসছিল।

এ অবস্থায় গোলাবাড়ী গ্রামের আজিজুল হক ও ফরহাদ মিয়া অনেকটা অগ্রসর হয়ে ট্রেন থামানোর জন্য গামছা উড়িয়ে চালককে বিপদ সংকেত দিলে চালক ট্রেনটি থামিয়ে দেন। এতে অল্পের জন্য হাজারো যাত্রীর প্রাণ রক্ষা পায়। পরে ভাঙ্গা লাইনটি মেরামত করা হলে প্রায় এক ঘন্টা পর ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

ট্রেনের সহকারী চালক ইদ্রিস আলী জানান, সকাল ৯টা ৩০ মিনিটে দেওয়ানগঞ্জের উদ্দেশ্যে ঈদ স্পেশাল ট্রেনটি কমলাপুর থেকে যাত্রা শুরু করে। ফরচুঙ্গি ব্রিজ এলাকায় লোকজনের গামছা উড়ানো সংকেত দেখে ট্রেন থামাই। এতে একটি বড় দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছি।

মশাখালী রেলওয়ে স্টেশনের মাস্টার আমিনুল ইসলাম বলেন, বেলা ১২টার দিকে খবর পাই ১৩৫নং ব্রিজের উপর রেললাইন ভাঙ্গা থাকায় স্থানীয় লোকজন ট্রেন থামিয়ে দেয়। এতে মশাখালী রেল স্টেশন হাওর এক্সপ্রেস ট্রেনটি আটকা পড়ে। পরে বেলা ১টার দিকে ভাঙ্গা রেল মেরামত করা হলে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

গফরগাঁও স্টেশন মাস্টার আব্দুল্লাহ আল হারুন বলেন, রেললাইনের টেম্পার কমে গেলে এ ধরনের ঘটনা ঘটে। এ লাইনগুলো অনেক পুরাতন। এজন্য এ ধরনের ঘটনা ঘটছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। স্থানীয় মানুষ সচেতন হয়ে বিষয়টি জানানোর কারণে বড় দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে ট্রেন ভর্তি যাত্রীরা।

Related Posts

গামছা উড়িয়ে থামানো হলো ট্রেন, বড় দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি

১২ জুলাই, ২০২২,

৮:৪৬ pm

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে রেললাইন ভাঙ্গা দেখে গামছা উড়িয়ে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা ঈদ স্পেশাল ট্রেনের যাত্রীদের প্রাণ রক্ষা করেছেন দুই ব্যক্তি।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা-ময়মনসিংহ রেলপথের মশাখালী-কাওরাইদ স্টেশনের মধ্যবর্তী লংগাইর ইউনিয়নের গোলাবাড়ি ১৩৫নং ফরচুঙ্গির ব্রিজে এই ঘটনা ঘটে।

এর পূর্বে গত ০২ জুন একই রেলপথের গফরগাঁও-মশাখালী স্টেশনের মধ্যবর্তী হাতীখলা বাজারে রেললাইন ভাঙ্গা থাকায় ট্রেন চলাচল বিঘ্নিত হয়েছিল।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বেলা ১২টার দিকে স্থানীয় লোকজন পায়ে হেটে ব্রিজ পারাপারের সময় ব্রিজের উপর দুই লাইনের সংযোগস্থলে প্রায় ১০ ইঞ্চি পরিমাণ রেললাইন ভাঙ্গা দেখতে পান। এ সময় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা দেওয়ানগঞ্জগামী ঈদ স্পেশাল ট্রেন আসছিল।

এ অবস্থায় গোলাবাড়ী গ্রামের আজিজুল হক ও ফরহাদ মিয়া অনেকটা অগ্রসর হয়ে ট্রেন থামানোর জন্য গামছা উড়িয়ে চালককে বিপদ সংকেত দিলে চালক ট্রেনটি থামিয়ে দেন। এতে অল্পের জন্য হাজারো যাত্রীর প্রাণ রক্ষা পায়। পরে ভাঙ্গা লাইনটি মেরামত করা হলে প্রায় এক ঘন্টা পর ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

ট্রেনের সহকারী চালক ইদ্রিস আলী জানান, সকাল ৯টা ৩০ মিনিটে দেওয়ানগঞ্জের উদ্দেশ্যে ঈদ স্পেশাল ট্রেনটি কমলাপুর থেকে যাত্রা শুরু করে। ফরচুঙ্গি ব্রিজ এলাকায় লোকজনের গামছা উড়ানো সংকেত দেখে ট্রেন থামাই। এতে একটি বড় দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছি।

মশাখালী রেলওয়ে স্টেশনের মাস্টার আমিনুল ইসলাম বলেন, বেলা ১২টার দিকে খবর পাই ১৩৫নং ব্রিজের উপর রেললাইন ভাঙ্গা থাকায় স্থানীয় লোকজন ট্রেন থামিয়ে দেয়। এতে মশাখালী রেল স্টেশন হাওর এক্সপ্রেস ট্রেনটি আটকা পড়ে। পরে বেলা ১টার দিকে ভাঙ্গা রেল মেরামত করা হলে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

গফরগাঁও স্টেশন মাস্টার আব্দুল্লাহ আল হারুন বলেন, রেললাইনের টেম্পার কমে গেলে এ ধরনের ঘটনা ঘটে। এ লাইনগুলো অনেক পুরাতন। এজন্য এ ধরনের ঘটনা ঘটছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। স্থানীয় মানুষ সচেতন হয়ে বিষয়টি জানানোর কারণে বড় দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে ট্রেন ভর্তি যাত্রীরা।

Related Posts