শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২, সন্ধ্যা ৭:৪৭
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২,সন্ধ্যা ৭:৪৭

যশোর যুবদলের সহসভাপতিকে কুপিয়ে হত্যা

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর

১২ জুলাই, ২০২২,

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

৩:১১ pm

যশোর জেলা যুবদলের সিনিয়র সহসভাপতি বদিউজ্জামান ধনী দুর্বৃত্তদের হামলায় নিহত হয়েছেন।

শহরের শংকরপুর আকবরের মোড়ে আজ মঙ্গলবার বেলা পৌনে ১২টার দিকে তাকে কুপিয়ে জখম করে দুর্বৃত্তরা।

চারিদিককে বিষয়টি সম্পর্কে কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজুল ইসলাম জানান, গুরুতর অবস্থায় যশোর জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয় বদিউজ্জামানকে। সেখানে দুপুর ১২টা ১০ মিনিটে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

শহরের বেজপাড়ার চোপদারপাড়া এলাকার বাসিন্দা ছিলেন ৫২ বছর বয়সী বদিউজ্জামান।

স্থানীয়দের বরাতে ওসি জানান, দুপুর পৌনে ১২টার দিকে বাসার কাছে আকবরের মোড়ে একটি দোকানে বসেছিলেন বদিউজ্জামান । এ সময় রিকশা দিয়ে এসে কয়েকজন ব্যক্তি তার জামার কলার ধরে টেনেহিঁচড়ে ধারালো ছুরি দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে তাকে ফেলে রেখে যায়।

আশপাশের লোকজন গুরুতর অবস্থায় তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১২টার পর মারা যান তিনি।

জেলা বিএনপির সদস্যসচিব সৈয়দ সাবেরুল হক বলেন, ‘প্রকাশ্য একজন রাজনৈতিক নেতাকে হত্যা করা আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি। খুনিদের অবিলম্বে আটক করে শাস্তির আওতায় আনার জোর দাবি জানাচ্ছি।’

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফিরোজ কবির চারিদিককে বলেন, ‘কারা কী কারণে বদিউজ্জামানকে হত্যা করেছে, তাৎক্ষণিকভাবে কিছু বলা যাচ্ছে না। হত্যায় জড়িতদের আটকের জন্য পুলিশ কাজ করছে।’

Related Posts

যশোর যুবদলের সহসভাপতিকে কুপিয়ে হত্যা

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর

১২ জুলাই, ২০২২,

৩:১১ pm

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp

যশোর জেলা যুবদলের সিনিয়র সহসভাপতি বদিউজ্জামান ধনী দুর্বৃত্তদের হামলায় নিহত হয়েছেন।

শহরের শংকরপুর আকবরের মোড়ে আজ মঙ্গলবার বেলা পৌনে ১২টার দিকে তাকে কুপিয়ে জখম করে দুর্বৃত্তরা।

চারিদিককে বিষয়টি সম্পর্কে কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজুল ইসলাম জানান, গুরুতর অবস্থায় যশোর জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয় বদিউজ্জামানকে। সেখানে দুপুর ১২টা ১০ মিনিটে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

শহরের বেজপাড়ার চোপদারপাড়া এলাকার বাসিন্দা ছিলেন ৫২ বছর বয়সী বদিউজ্জামান।

স্থানীয়দের বরাতে ওসি জানান, দুপুর পৌনে ১২টার দিকে বাসার কাছে আকবরের মোড়ে একটি দোকানে বসেছিলেন বদিউজ্জামান । এ সময় রিকশা দিয়ে এসে কয়েকজন ব্যক্তি তার জামার কলার ধরে টেনেহিঁচড়ে ধারালো ছুরি দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে তাকে ফেলে রেখে যায়।

আশপাশের লোকজন গুরুতর অবস্থায় তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১২টার পর মারা যান তিনি।

জেলা বিএনপির সদস্যসচিব সৈয়দ সাবেরুল হক বলেন, ‘প্রকাশ্য একজন রাজনৈতিক নেতাকে হত্যা করা আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি। খুনিদের অবিলম্বে আটক করে শাস্তির আওতায় আনার জোর দাবি জানাচ্ছি।’

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফিরোজ কবির চারিদিককে বলেন, ‘কারা কী কারণে বদিউজ্জামানকে হত্যা করেছে, তাৎক্ষণিকভাবে কিছু বলা যাচ্ছে না। হত্যায় জড়িতদের আটকের জন্য পুলিশ কাজ করছে।’

Related Posts